গ্রাম ও শহরের ব্যবধান কমাতে বাস্তবসম্মত কর্মসূচি গ্রহণে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি শিল্পমন্ত্রীর আহ্বান

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন গ্রাম ও শহরের ব্যবধান কমাতে বাস্তবসম্মত কর্মসূচী গ্রহণের জন্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি আজ সকালে রাজধানীর মতিঝিলে সোনালী ব্যাংকের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহদাৎবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহবান জানান।
ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একেএম কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ। এতে অন্যান্যের মধ্যে ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মো. নূরুল আলম তালুকদার, মো. ইমতিয়াজ আহমেদ ও ড. দৌলতুন্নাহার খানম বক্তব্য রাখেন।
শিল্পমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশে কর্মসংস্থান সৃজনে ব্যাংকিং খাতের বিরাট অবদান রয়েছে। বিশেষ করে তৃণমূল পর্যায়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সোনালী ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।
দেশের বিশাল যুব জনগোষ্ঠিকে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাদেরকে উৎপাদন ও উন্নয়নের ধারায় সম্পৃক্ত করা গেলে বাংলাদেশকে কোনোভাবেই দাবিয়ে রাখা সম্ভব নয়। এ দায়িত্ব ব্যাংকিং খাতের ওপরই বর্তায়। তিনি উন্নয়নে সমতার জন্য গ্রাম পর্যায়ে উৎপাদনশীল খাতে বিনিয়োগ বৃদ্ধিরও তাগিদ দেন।
পঁচাত্তরের পনেরই আগস্ট হত্যাকা- কোনো পারিবারিক হত্যাকা- ছিল না উল্লেখ করে হুমায়ুন বলেন, এই হত্যাকান্ড ছিল বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অভিযাত্রাকে থামিয়ে দিতে পরাজিত শক্তির সুপরিকল্পিত চক্রান্ত। এর মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতাকে হত্যা করার অপচেষ্টা হয়েছিল।
তিনি আরো বলেন, একইভাবে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করে বাংলাদেশকে নেতৃত্বশূণ্য করতেই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল। পনেরই আগস্টের হত্যাকা- এবং একুশ আগস্টের গ্রেনেড হামলা একই সূত্রে গাঁথা বলে তিনি মন্তব্য করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap