টাঙ্গাইলের রূপা হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে

টাঙ্গাইলের চাঞ্চল্যকর রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে এসেছে। রবিবার বিচারিক আদালত থেকে এই নথি সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে পৌঁছে। এরপরই নথিটি হাইকোর্টের ডেথ রেফারেন্স শাখায় পাঠানো হয়।
এ প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মো. সাইফুর রহমান বলেন, ডেথ রেফারেন্স নথি এসেছে। এখন পেপারবুক প্রস্তুত করা হবে।
গত ১২ ফেব্রুয়ারি রূপা খাতুন ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। রায়ে বাসটির চালক হাবিবুর (৪৫), চালকের সহকারী শামীম (২৬), আকরাম (৩৫) ও জাহাঙ্গীরকে (১৯) ফাঁসির আদেশ দেয়া হয়। বাসের সুপার ভাইজার সফর আলীকে (৫৫) দেয়া হয় সাত বছরের কারাদণ্ড। টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবুল মনসুর মিয়া এ রায় দেন। নিম্ন আদালতের ফাঁসির এই রায় নিশ্চিতকরণে নথি ডেথ রেফারেন্স আকারে হাইকোর্টে পাঠানো হয়ে থাকে। এখন নিয়মানুযায়ী হাইকোর্টের ডেথ রেফারেন্স শাখা মামলার পেপারবুক প্রস্তুত করবে। পেপারবুক প্রস্তুতের পরই মামলাটি শুনানির জন্য হাইকোর্টে পাঠাবেন প্রধান বিচারপতি।
গত ২৫ আগস্ট বগুড়া থেকে ময়মনসিংহ যাওয়ার পথে রূপা খাতুনকে চলন্ত বাসে ধর্ষণের পর হত্যা করে টাঙ্গাইলের মধুপুর বন এলাকায় ফেলে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলাটি ১৪ কার্যদিবসে বিচার কাজ সম্পন্ন করে আদালত। রূপা একটি বহুজাতিক কোম্পানির কর্মী ছিলেন।