দু’বার পিছিয়ে পড়েও মরক্কোর সাথে ড্র করে শেষ ষোলোতে স্পেন

রাশিয়া বিশ্বকাপে বি’ গ্রুপের ম্যাচে গত রাতে দু’বার পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত মরক্কোর সাথে ২-২ গোলে ড্র করলো স্পেন। ফলে ৩ খেলায় ৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে উঠলো স্প্যানিশরা। এ’ গ্রুপের রানার্স-আপ স্বাগতিক রাশিয়ার বিপক্ষে শেষ ষোলোতে লড়াই করবে ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী স্পেন। মস্কোতে আগামী ১ জুলাই বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় মুখোমুখি হবে স্পেন ও রাশিয়া।
প্রথম দু’ম্যাচ থেকে এক জয় ও ড্র’তে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শেষ ষোলোর দ্বারপ্রান্ত ছিলো স্পেন। তবে প্রথম দু’ম্যাচ হেরে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিশ্বকাপ শেষ করার পথ তৈরি করে রেখেছিলো মরক্কো। তাই গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচটি স্পেনের জন্য গুরুত্ব বহন করলেও মরক্কোর জন্য তা ছিলো ভালোভাবে বিশ্বকাপ শেষ করার মিশন।
ম্যাচের শুরু থেকেই দাপট দেখাতে থাকা মরক্কো ১৪ মিনিটেই স্পেনের রক্ষণদূর্গ ভেঙ্গে গোলের স্বাদ নেয় তারা। ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস ও মিডফিল্ডার আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার ভুলে স্পেনের বিপদ সীমানায় বল পেয়ে স্ট্রাইকার খালিদ বুয়াতাইব বাঁ-পায়ের শটে গোল করেন (১-০)।
অবশ্য লিডটা বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি তারা। ১৯ মিনিটে ইনিয়েস্তার পাস থেকে ডান-পায়ের শটে বলকে মরক্কোর জালে পাঠান মধ্যমাঠের আরেক খেলোয়াড় ইস্কো। এই গোলে ম্যাচ সমতা আনে স্পেন।
ম্যাচে সমতা আসার ৬ মিনিট পর আবারও স্প্যানিশ রক্ষণ দূর্গ ফাঁকা পেয়ে বল নিয়ে স্পেনের বিপদ সীমানায় প্রবেশ করেন মরক্কোর প্রথম গোলের মালিক বুয়াতাইব। কিন্তু এবার আর মরক্কোকে আনন্দে ভাসাতে পারেননি তিনি। গোলরক্ষক ডেভিড ডি গেয়া গোল বঞ্চিত করেন বুয়াতাইবকে।
এরপর বেশ কয়েকটি ভালো আক্রমন করেছিলো স্পেন। মধ্যমাঠ ও বল দখলে নিয়ে দু’প্রান্ত দিয়ে আক্রমন শানায় তারা। কিন্তু প্রথমার্ধে লিড নিতে পারেনি স্প্যানিশরা। ফলে ১-১ সমতায় শেষ হয় ম্যাচের প্রথমভাগ।
দ্বিতীয়ার্ধেও নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করে খেলে স্পেন। ৫৬ মিনিটে গোলের সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন ইনিয়েস্তা। মরক্কোর ডি-বক্সের বাইরে থেকে জোড়ালো শট নিয়েছিলেন ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে। কিন্তু সেই শট লক্ষভ্রষ্ট হয়। এরপর মরক্কোর সীমানায় একের পর এক আক্রমন করেই গেছে স্পেন। কিন্তু কাঙ্খিত গোলের দেখা পায়নি তারা।
উল্টো ৮১ মিনিটে দ্বিতীয় গোলের স্বাদ নেয় মরক্কোই। মিডফিল্ডার ফয়সাল ফজরের কর্ণার থেকে হেডে গোল করেন ইউসেফ এন নাসিরি। ফলে আবারো লিড নেয় মরক্কো। ২-১ এ লিড নিয়ে ম্যাচ শেষ হতে বেশি সময় বাকি না থাকায় রক্ষণাত্মক হয়ে পড়ে মরক্কা।
এই সুযোগে ইনজুরি সময়ে দুর্দান্ত এক গোলের স্বাদ নেয় স্পেন। ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে ডিফেন্ডার দানি কারভাজালের পা থেকে আসা বলটি ফ্লিক করে মরক্কোর জালে ঠেলে দেন স্ট্রাইকার ইগো আসপাস। অবশ্য এই গোলটিকে অফসাইড বলে ঘোষণা দেন রেফারি। পরে রিভিউ দেখে রেফারি তার সিদ্বান্ত বদলালে গোল পায় স্পেন। ফলে দ্বিতীয়বারের মত ম্যাচে সমতা ফেরায় স্পেন। শেষ পর্যন্ত ২-২ সমতাতেই শেষ হয় ম্যাচটি।