/প্রধান বিচারপতি মানসিক ভারসাম্যহীন: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

প্রধান বিচারপতি মানসিক ভারসাম্যহীন: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

প্রধান বিচারপতিকে ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’ বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেছেন, ‘আমি মনে করি, তিনি (প্রধান বিচারপতি) মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন। আমরা মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করব তাকে পরীক্ষা করানো হোক, ডাক্তার দেখানো হোক, তার মানসিক ভারসাম্য ঠিক আছে কি না। তিনি যেসব কথাবার্তা বলছেন, তাতে পাগল ছাড়া এমন কথা কেউ বলতে পারে না।’

সোমবার (২১ আগস্ট) গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক আলোচনা সভায় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী এসব কথা বলেন। জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্টকে স্মরণ করে কালিয়াকৈর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ এর আয়োজন করে।

প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ এক ও অভিন্ন। তুমি পাকিস্তানিদের হয়ে হুমকি দেখাও কত বড় দুঃসাহস তোমার? কত বড় ধৃষ্টতা।’

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই প্রধান বিচারপতির সমালোচনা করে যাচ্ছেন সরকারের মন্ত্রীরা। এমনকি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সোমবার সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং আদালতে প্রধান বিচারপতির মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন।

তিনি বলেছেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে অনেক অবান্তর এবং স্ববিরোধী বক্তব্য রয়েছে। এছাড়া রবিবার (২০ আগস্ট) আদালতে এক মামলার শুনানিতে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে পাকিস্তানের উদাহরণ টেনে আনারও সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

সম্প্রতি পাকিস্তানে উচ্চ আদালতের রায়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন। রবিবার (২০ আগস্ট) সুপ্রিম কোর্টে এক মামলার শুনানিতে সে বিষয়টি উদাহরণ হিসেবে টানেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা।

এ সময় তিনি বলেন, ‘বিচার বিভাগ ধৈর্য্য ধরছি। যথেষ্ট ধৈর্য্য ধরছি। আজকে একজন কলামিস্টের লেখা পড়েছি- সেখানে  ধৈর্য্যের  কথাই বলা হল। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট প্রধানমন্ত্রীকে ইয়ে (অযোগ্য) করল। সেখানে কিছুই (আলোচনা-সমালোচনা) হয়নি। আমাদের আরও পরিপক্কতা দরকার।’

খবরটি সবার সাথে শেয়ার করুন !