/মালয়েশিয়া থেকে ফিরতে হবে লাখো বাংলাদেশিকে

মালয়েশিয়া থেকে ফিরতে হবে লাখো বাংলাদেশিকে

মালয়েশিয়ায় ১০ বছরের বেশি কেউ ভিসা পাবেন না। ইতিমধ্যে যারা ১১ ও ১২তম ভিসা (স্টিকার) পেয়েছেন, সেগুলোও বাতিল করা হয়েছে। এতে করে সেখানে থাকা বিদেশি কর্মীরা পড়েছেন বিপাকে। ফলে এসব বিদেশি কর্মীর মধ্যে প্রায় লাখো বাংলাদেশিকেও দেশে ফিরতে হচ্ছে।

২২ জুন মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগ এ বিষয়ে একটি নোটিশ জারি করে। নোটিশে বলা হয়- ১১ ও ১২ নম্বর ভিসাপ্রাপ্তদেরও দেশে ফেরত যেতে হবে।

এদিকে মালয়েশিয়ায় নতুন শ্রমিক নিয়োগ সাময়িক স্থগিত করার পর পরই দেশটির সরকারের এমন ঘোষণায় বিদেশি কর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০০৭ সালের কলিং ভিসায় মালয়েশিয়ায় যারা এসেছেন, তারা এর আওতায় পড়েছেন।

গত শুক্রবার মালয়েশীয় পত্রিকা ‘দ্য স্টার’ এ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত এক লাখের বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক মালয়েশিয়ায় গেছে। এখনো আরও অন্তত এক লাখ শ্রমিক মালয়েশিয়ায় যাওয়ার অপেক্ষায় আছে।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী উন্নয়নমন্ত্রী এম কুলাসেগারানের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বিগত সরকারের সময়ে যেভাবে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় জনশক্তি নেয়া হচ্ছিল তাতে শ্রমিকদের কাছ থেকে মোটা অংকের বাড়তি অর্থ আদায় করা হচ্ছিল। আর তা যাচ্ছিল দুই দেশের কিছু দালালের পকেটে। এসব দুর্নীতির কারণে মালয়েশিয়ায় লোক নেয়ার চলমান প্রক্রিয়াকে স্থগিত ঘোষণা করে দেশটি।

এদিকে দেশটির অভিবাসন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, অবৈধভাবে বসবাসরত অভিবাসীদের বিরুদ্ধে জুলাই মাস থেকে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করবে মালয়েশিয়ার প্রশাসন।

এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মুস্তাফার আলি বলেন, যারা অবৈধভাবে কর্মরত রয়েছেন, তাদের ৩০ আগস্টের মধ্যে ‘থ্রি প্লাস ওয়ান’-এর আওতায় তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে নিয়োগকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার ক্ষমতায় আসেন দেশটির আধুনিকায়নের জনক মাহাথির মোহাম্মদ। সাবেক নাজিব রাজাক সরকারের দুর্নীতির বিচারসহ সবক্ষেত্রে দুর্নীতির প্রভাবমুক্তির কাজে মনোযোগ দিয়েছেন তিনি।

খবরটি সবার সাথে শেয়ার করুন !