‘মুসলিম হয়ে কিভাবে মহানবী সম্পর্কে খারাপ কথা লিখে অন্যকে ফাঁসায়?’প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

ভোলার বোরহানউদ্দিনে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে সনাতন ধর্মের এক যুবকের বিচারের দাবিকে কেন্দ্র করে যে সহিংস ঘটনা ঘটেছে তার প্রতিক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ভোলার ঘটনায় হিন্দু ছেলের ফেসবুক আইডি হ্যাক করে সেই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। মুসলিম হয়ে কিভাবে মহানবী (সঃ) বিষয়ে খারাপ কথা লিখে অন্যকে ফাঁসায়? তা বোধগম্য নয়।’

রোববার বিকালে গণভবনে যুবলীগের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের আগে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘ভোলায় ফেসবুক হ্যাক করে যে বা যারা অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।’’

অন্যায় করলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও এসময় জানান তিনি। বলেন: সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলবে।

 

বোরহানউদ্দিনে ধর্ম অবমাননার কথিত অভিযোগে সনাতন সম্প্রদায়ের ওই যুবকের বিচারের দাবিতে রোববার সকালে ‘তৌহিদী জনতা’র ব্যানারে সমাবেশ করা হয়। সেই সমাবেশ শেষে পুলিশের সাথে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে নিহত হন চারজন। এছাড়াও ১০ পুলিশ সদস্যসহ দেড় শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, সেই সংঘর্ষের একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি চালায় পুলিশ। কিন্তু মারমুখি জনতা পুলিশের উপর হামলা চালায়। এ সময় গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

‘তৌহিদী জনতা’র নেতৃবৃন্দ দাবি করেছেন, পুলিশের গুলিতে তাদের চারজন কর্মী-সমর্থক নিহত হয়েছেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি সেখানে চার প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap