রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমার প্রস্তুত

মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী খ শোয়ে বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করতে মিয়ানমার প্রস্তুত। রোহিঙ্গাদের প্রাথমিক আশ্রয়ের জন্য ক্যাম্পও তৈরি করা হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাত করেন মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তাদের সাক্ষাৎ শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন এসব কথা জানিয়েছেন। সচিব বলেন, মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন- তার সরকার কফি আনান কমিশনের সুপারিশসমূহ পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করবে।

প্রেস সচিব বলেন, সাক্ষাতের সময় রাষ্ট্রপতি গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে ছয় লাখের বেশি এবং আগে বিভিন্ন সময়ে আরও চার লাখের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আসার বিষয়টি মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, মিয়ানমার থেকে বলপূর্বক বিতাড়িত রোহিঙ্গা নাগরিকরা বাংলাদেশের জন্য বড় সমস্যা। এই রোহিঙ্গারা যাতে দ্রুত নিরাপদে ও মর্যাদার সঙ্গে নিজ দেশে ফিরতে পারে সেজন্য যথাযথ উদ্যোগ নিতে মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানান আবদুল হামিদ।

এছাড়া রোহিঙ্গাদের ফেরার জন্য মিয়ানমারে অনুকূল পরিবেশ এবং সেদেশের সরকারের ওপর যাতে আস্থা তৈরি হয় তার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন রাষ্ট্রপতি।