সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত

লঘুচাপ ও মৌসুমি বায়ুর জোরালো অবস্থানের কারণে দেশের সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি চলাচল করতে বলা হয়েছে। গভীর সমুদ্রে যাওয়ার উপরও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।
আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বাসসকে জানান, বরিশাল, খুলনা, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের নদীসমূহের ওপর ২ নম্বর হুঁশিয়ারী সংকেত রয়েছে।
তিনি বলেন, ১৫ জুনের পর আবহাওয়া পরিস্থিতি কিছুটা পরিবর্তিত হবে। বিশেষ করে চট্টগ্রামসহ কিছু জেলার বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কমে আসবে।
আজ সকাল ৯ টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, সিলেট, ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা/ঝড়ো হাওয়া ও বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।
এছাড়া সারাদেশের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।
আবহাওয়ার বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশের কুমিল্লা ও ভারতের ত্রিপুরা অঞ্চলে অবস্থানরত লঘুচাপটি গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। মৌসুমী বায়ু উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় রয়েছে। গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। দক্ষিণÑপূর্ব মৌসুমী বায়ু চট্টগ্রাম, ঢাকা, সিলেট, ময়মনসিংহ, খুলনা ও বরিশাল বিভাগে বিস্তার লাভ করেছে।
আজ ঢাকায় সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬টা ৪৭ মিনিটে। আগামীকাল সূর্যোদয় ভোর ৫ টা ১০ মিনিটে।