সিউল সফরে যাচ্ছেন উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান

অনলাইন ডেস্ক

উত্তর কোরিয়া গত কয়েক বছরের মধ্যে তাদের সবচেয়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে দক্ষিণ কোরিয়া সফরে পাঠাচ্ছে।

শীতকালীন অলিম্পিক চলাকালে দুইদেশের মধ্যে উত্তেজনা প্রশমণের লক্ষ্যেই উত্তর কোরিয়ার আলঙ্কারিক রাষ্ট্রপ্রধান কিম ইয়ং ন্যাম আগামী শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। সফরে কিমের সঙ্গে ২২ জনের একটি প্রতিনিধি দল থাকবে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণ মন্ত্রণালয়।

উত্তর কোরিয়ার পার্লামেন্টের প্রধান এবং গত চার বছরের মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যাওয়া উত্তরের সবচেয়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হবেন কিম ইয়ং ন্যাম।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের প্রাসাদ ব্লু হাউস থেকে অজ্ঞাতনামা এক কর্মকর্তা বিবিসিকে জানিয়েছেন, তাদের বিশ্বাস এই সফর দুই কোরিয়ার আন্তঃসম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে উত্তর কোরিয়ার সদিচ্ছার প্রতিফলন এবং তাদের আন্তরিকতার বহিঃপ্রকাশ।

উত্তর কোরিয়ার তিন কর্মকর্তা ও তাদের ১৮ জন সহযোগীর একটি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিবেন কিম, জানিয়েছে দক্ষিণের একত্রীকরণ মন্ত্রণালয়।

শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্টি পাইঅংছাং এ এবারের শীতকালীন অলিম্পিকের উদ্বোধীন অনুষ্ঠান হবে। ওই অনুষ্ঠানে কিম উপস্থিত থাকবেন কিনা তা অবশ্য জানায়নি মন্ত্রণালয়টি। এই অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স উপস্থিত থাকবেন।

দুই কোরিয়ার ক্রীড়াবিদরা একটি পতাকার তলে সমবেত হয়ে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মার্চ করবেন।

৯০ বছর বয়সী কিম ইয়ং ন্যাম দীর্ঘদিন ধরে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এরই মধ্যে তিন তিনজন নেতার শাসনকাল দেখেছেন।  নাম মাত্র রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে তিনি পিয়ংইয়ংয়ে আগত বিদেশি কূটনীতিক ও রাষ্ট্রীয় অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে থাকেন। এছাড়া বিদেশি নেতাদের অভিনন্দন ও শোকবার্তা পাঠানোর দায়িত্ব পালন করে থাকেন ক্ষমতাহীন রাষ্ট্রীয় প্রধান ন্যাম। ১৯৯৮ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার রাবার স্ট্যাম্প পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এই ব্যক্তি।

যদিও উত্তর কোরিয়ার প্রকৃত ক্ষমতা কিম জং উনের হাতে। তবে উনের পক্ষে বিদেশ সফরসহ সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা পালন করে থাকেন কিম ইয়ং ন্যাম।

সূত্র: বিবিসি