/সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চান প্রধানমন্ত্রী

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চান প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

চার বছর আগে সহিংসতার মধ্য দিয়ে যেভাবে নির্বাচন হয়েছে, সেটা আর চাইছেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি চান আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হোক। আর এই বিষয়টি নিশ্চিত করতে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যদের প্রস্তুত থাকার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

সোমবার গাজীপুরের সফিপুরে আনসার ও ভিডিপি একাডেমিতে বাহিনীটির ৩৮তম জাতীয় সমাবেশে বক্তব্য রাখার সময় এই আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আসন্ন নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আপনাদের প্রতিটি সদস্যকে সবসময় প্রস্তুত থাকতে হবে। ভোটের অধিকার জনগণের মৌলিক অধিকার। সেটা যেন তারা যথাযথভাবে প্রয়োগ করতে পারে। আমরা চাই আমাদের আমাদের দেশের জাতীয় নির্বাচন আরও সমৃদ্ধশালী হোক, জনগণ তার সাংবিধানিক অধিকার যেন প্রয়োগ করতে পারে, সে বিষয়ে যথাযথভাবে আপনাদেরকে দৃষ্টি দিতে হবে।’

এর অাগে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছার পরপরই প্রধানমন্ত্রীকে সশস্ত্র সালাম জানান অানসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবুজ খোলা জিপে চড়ে প্যারেড পরিদর্শন করেন। সাহসিকতা ও সেবামূলক কাজে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য নির্ধারিত সদস্যদের প্রধানমন্ত্রী পদক পরিয়ে দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা যখন সারা দেশে অাগুন সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছিল, তখন অাপনারা তাদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধে বিশেষ ভূমিকা রেখেছিলেন। অামরা যখনই ক্ষমতায় এসেছি তখনই বাংলাদেশের প্রত্যেকটি বাহিনীর উন্নয়নে কাজ করেছি।

অানসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীকে চেইন অব কমান্ড মেনে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় অাসার পর অামরাই প্রথম অানসার বাহিনীকে পতাকা হাতে তুলে দিয়েছিলাম। অামরা অাপনাদের জন্য সর্বনিম্ন ১৩০০ থেকে সর্বোচ্চ ৫০০০ টাকা পর্যন্ত ঝুঁকি ভাতা বৃদ্ধি করেছি। অাপনাদের কাজের মাধ্যমে অাপনারা সরকারের নির্ভর বাহিনী হিসেবে পরিণত হয়েছেন। বাংলাদেশকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মুক্ত করে গড়ে তুলতে হবে। বাংলাদেশ যেন বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে সে জন্য অাপনাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

খবরটি সবার সাথে শেয়ার করুন !