আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার ( রাত ২:৫৬ )
  • ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
  • ২৯শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী
  • ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ ( শরৎকাল )

স্বপ্ন আর বাস্তবতার ফারাক বোঝালেন তামিম

0

আর কোনো পরিবার থেকে তিনজন টেস্ট ক্রিকেটার পায়নি বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের কাজির দেউড়ির খান পরিবার থেকে একটা সময় বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন আকরাম খান ও নাফিস ইকবাল। এখন সেটি করছেন তামিম ইকবাল। তিন ‘খান’ টেস্ট খেলেছেন ৬৮টি। এই ৬৮ টেস্টের প্রতিপক্ষ হিসেবে আটটি দলকে পাওয়া গেলে নেই শুধু একটা দল,Ñঅস্ট্রেলিয়া।

প্রথমবারের মতো বিশ্বসেরা দলের বিপক্ষে খেলা, তাঁর ৫০তম টেস্ট…সব মিলিয়ে তামিমের জন্য মিরপুর টেস্ট বড় উপলক্ষ হয়ে আসছে। তামিম ভালো খেলেই সেটি স্মরণীয় করে রাখতে চান। তবে সব সময় প্রত্যাশামতো যে সবকিছু হয় না, সেই বাস্তবতাও বোঝালেন। একই সঙ্গে সতর্ক করলেন, অভিজ্ঞতায় যতই ঘাটতি থাকুক, দলটা নামে-ভারে অস্ট্রেলিয়াই। তাই টেস্ট সিরিজের ফলাফল নিয়ে স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি বাস্তবতাটাও যেন মাথায় রাখা হয়।
সর্বশেষ যে অস্ট্রেলিয়া দল খেলে গেছে, সেটি অবশ্য ছিল ইতিহাসের সেরা দলগুলোর একটি। ২০০৬ সালের এপ্রিলে অস্ট্রেলিয়া যখন টেস্ট খেলতে এসেছিল বাংলাদেশে, তামিম তখন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ওপেনার, জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন উঁকি দিচ্ছে তাঁর চোখে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওই সিরিজটা তিনি দেখেছিলেন চট্টগ্রামে, টিভিতে। দর্শক হিসেবে দেখা সেই সিরিজের কোন স্মৃতিটা বেশি মনে পড়ে তামিমের? ‘ফতুল্লা টেস্টে শাহরিয়ার নাফীসের সেঞ্চুরিটাই বেশি মনে পড়ে’—সংবাদ সম্মেলন শেষে ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে বাঁহাতি ওপেনার খানিক সময়ের জন্য ফিরে যান ১১ বছর আগে।
অতীত থেকে বর্তমানে ফিরে তামিম যখন তাকাচ্ছেন সামনে, অদূরে ২২ গজ তাঁকে হাতছানি দিচ্ছে নতুন কীর্তি গড়ার। গত তিন বছর ক্রিকেটের প্রতিটি সংস্করণে ধারাবাহিক ভালো খেলছেন বাংলাদেশ দলের এই ওপেনার। তবে এ বছর খেলা পাঁচ টেস্টে তিন ফিফটি পেলেও এখনো পাননি সেঞ্চুরির দেখা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে সেঞ্চুরির খাতাটা খুলতে পারবেন তামিম?
সেঞ্চুরি পাবেন কি না, সময় বলে দেবে। তবে এই টেস্ট দিয়ে সাকিব আল হাসানের মতো তামিমও পূর্ণ করতে যাচ্ছেন একটা ‘ফিফটি’। ক্যারিয়ারের ৫০তম টেস্ট খেলার আগে অবশ্য বাড়তি কোনো রোমাঞ্চ নেই তাঁর, ‘একটা বিশেষ উপলক্ষ এটা। আমার বা দলের পারফরম্যান্স দিয়ে এটাকে আরও বিশেষ করা যায় কি না, সেই লক্ষ্যে নামব। যখন টেস্ট ক্রিকেট শুরু করি বা আমার অভিষেক হয়, তখন মাথায় ছিল, যতটা লম্বা সময় বাংলাদেশের হয়ে খেলা যায়। তবে একটা সময় মনে হচ্ছিল, আমরা যেভাবে টেস্ট খেলছি, তাতে ৫০টা খেলতে পারব কি না সন্দেহ আছে! এখন আমাদের অনেক ম্যাচ বেড়েছে। টেস্ট বেশি খেলছি আগের তুলনায়।’
বাংলাদেশ দলের কোচ বলেছেন অস্ট্রেলিয়াকে ২-০ ব্যবধানে হারাতে চান তাঁরা। কাল সাকিবও বলেছেন একই কথা। তবে তামিমের কথা কিছুটা ভিন্ন, ‘২-০ করতে হলে আগে ছোট ছোট বিষয়গুলো ঠিকভাবে করতে হবে। ২-০ বলে দেব আর হয়ে যাবে, তা নয়। প্রতিটি সেশন, প্রতিটি বল আপনাকে লড়াই করতে হবে। মাঠে সবকিছু বাস্তবায়ন করতে হবে। যে দল মাঠে ভালোভাবে বাস্তবায়ন করতে পারবে, তাদের জেতার সম্ভাবনা বেশি। তবে ২৭ তারিখ যখন নামব, জেতার জন্যই নামব।’

Share.

Comments are closed.