/হাসপাতালে কাদের সিদ্দিকী: হেলিকপ্টারে টাঙ্গাইল থেকে ঢাকায়

হাসপাতালে কাদের সিদ্দিকী: হেলিকপ্টারে টাঙ্গাইল থেকে ঢাকায়

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় টাঙ্গাইল থেকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়েছে।

রবিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে হেলিকপ্টারটি টাঙ্গাইল থেকে ঢাকার উদ্দেশে উড়াল দেয়। ঢাকায় পৌঁছুনোর পর বঙ্গবীরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাঁকে সেখানেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এর আগে শনিবার ঈদের দিন বিকেলে ১০৪ ডিগ্রি জ্বর নিয়ে টাঙ্গাইলে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে টাঙ্গাইল আসার পথে সাভার এলাকায় পৌঁছানোর পর তার জ্বর আসে। একপর্যায়ে তিনি বারইপাড়ায় তার এক রাজনৈতিক কর্মীর বাড়িতে ওঠেন।

পরদিন টাঙ্গাইল এসে নিজ বাসভবনে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। ঈদের দিন বিকেলে তার দেহের তাপমাত্রা আরও বেড়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসক ডেঙ্গু জ্বরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরএমও সাইদুর রহমান বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর হাসপাতালে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে শনিবার সন্ধ্যায় বলেছিলেন, ‘জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শনিবার বিকেলে তিনি হাসপতালে ভর্তি হয়েছেন। পরীক্ষার পর জানা গেছে তিনি ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত। চিকিৎসা চলছে। এখন তার শারীরিক অবস্থা অনেকটাই স্বাভাবিক।’

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের তত্তাবধায়ক পুতুল রায় রবিবার বিকেলে বলেন, ‘রবিবার সকালে উনার অবস্থার অনেকটাই উন্নতি হয়। কিন্তু পারিবারিকভাবে উনাকে ঢাকায় স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সেসময় আমি বলেছি, আপনি কি গাড়িতে বসে যেতে পারবেন।’

হেলিকপ্টারে ঢাকায় আসার আগে বঙ্গবীর বলেন, ‘আমি গাড়িতে বসে থাকার মত অবস্থায় আসলেই যাব।’

এরপরই উনাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এর আগে মুঠোফোনে তিনি ঢাকায় কয়েকজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে ঢাকায় যাওয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত করেন। এসময় বঙ্গবীরের সঙ্গে ছিলেন উনার একান্ত সচিব ফরিদ আহমেদ।

খবরটি সবার সাথে শেয়ার করুন !