/‘‌স্নাতকসহ ৬ মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের আবেদন বৈধ’

‘‌স্নাতকসহ ৬ মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের আবেদন বৈধ’

স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীদের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে আবেদন বৈধ বলে রায় দিয়েছে হাইকোর্ট।

আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ এ বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ বলে (এবসিলিউট) রায় দিয়েছে।

রিটের পক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্যাহ মিয়া এ কথা জানান। তিনি বলেন, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) ২০১৬ সালের ১৪ জুলাই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ওই বিজ্ঞপ্তিতে কম্পিউটার শিক্ষক পদে তিন বছরের ডিপ্লোমা কোর্স ও স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীদের কম্পিউটার শিক্ষক পদে আবেদনের সুযোগ দেয়া হয়। একই দিনে ওই বিজ্ঞপ্তি সংশোধন করে বলা হয়- স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীরা শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে আবেদনের সুযোগ পাবে না।

এডভোকেট ছিদ্দিক উল্যাহ বলেন, বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে সংক্ষুব্ধ কাজী মো. সাইফুদ্দিনসহ ১৮ জন আবেদনকারী হয়ে হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন। প্রাথমিক শুনানি শেষে ২০১৬ সালের ৮ আগষ্ট হাইকোর্ট সংশোধনী বিজ্ঞপ্তি বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করে এবং স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীদের শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে আবেদনের সুযোগ দিতে নির্দেশ দেয়। সে আলোকে ‘এনটিআরসিএ’ ২০১৬ সালের ১০ আগস্ট এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়ে স্নাতক ডিগ্রীসহ ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীদের শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে আবেদনের সুযোগ দেয়।

এডভোকেট ছিদ্দিক উল্যাহ বলেন, এদিকে রিটের রুল নিস্পত্তি না হওয়ায় ‘এনটিআরসিএ’ সারাদেশে কম্পিউটার শিক্ষক পদে ফল প্রকাশ বন্ধ রাখে। কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত রিটের ওপর দেয়া রুলের ওপর হাইকোর্টের এ বেঞ্চে চূড়ান্ত শুনানি অনুষ্টিত হয়। আজ রুল যথাযথ ঘোষণা করে রায় দেয় আদালত। ফলে ছয় মাসের কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নিবন্ধন সনদধারীদের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে আবেদন বৈধতা পেল।

খবরটি সবার সাথে শেয়ার করুন !