আজ থেকে কাজ শুরু তাপসের, অগ্রাধিকার পাবে যে ৫ বিষয়?

নির্বাচনে জয়লাভের প্রায় তিন মাস পর শনিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব নিয়েছেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। দায়িত্ব নেয়ার পর জানিয়েছেন ৫ টি কাজে অগ্রাধিকার দেবেন তিনি। ৯০ দিনের মধ্যে এসব কাজ শেষ করার লক্ষ্যে আজ থেকে কাজ শুরু করছেন তিনি।

৫ টি কাজের মধ্যে স্বাভাবিকভাবেই তিনি সবচেয়ে বেশি জোর দিচ্ছেন কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলার ওপর।

এছাড়া মশক নিধন, যানজট নিয়ন্ত্রণ, সড়ক অবকাঠামো উন্নয়ন এবং সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনাও তার অগ্রাধিকারের তালিকায় রয়েছে।

শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব বুঝে নেয়ার পর এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে মেয়র তাপস বলেন, প্রথম দিন থেকেই এসব বিষয় বাস্তবায়নে তিনি কাজ শুরু করতে চান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্ব নভেল করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে স্থবির। এরকম ‘কঠিন এক সময়ে’ তাকে দায়িত্ব নিতে হচ্ছে। এ কারণে নির্বাচনী ইশতেহারে না থাকলেও কোভিড-১৯ মোকাবেলায় জোর দেবেন তিনি।

‘গত একশো বছরে কেউ এমন কঠিন পরিস্থিতিতে একটি জনবহুল নগরীর মেয়রের দায়িত্ব নিয়েছে কি না আমার জানা নেই। তবে সবার সহযোগিতায়, সবার মতামত নিয়ে আমি এগোতে চাই। এই বাধাকে পরাস্ত করতে পারব- এটা আমি দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই’-যোগ করেন তাপস।

নির্বাচিত হওয়ার পর করোনাকালে মেয়রকে নগরবাসী দেখেনি। পাশাপাশি গণমাধ্যম কর্মীরাও মেয়রকে পাচ্ছে না গণমাধ্যমকর্মীদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে তাপস বলেন, এত দিন তো দায়িত্বে ছিলাম না। আজ থেকে দেখতে পাবেন। আর ডিএসসিসির জনসংযোগ দপ্তর রয়েছে। সেখান থেকে তথ্য দেওয়া হবে। এ ছাড়া সপ্তাহে একদিন গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে দেখা হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আত্মীয় হওয়ায় নাগরিকদের তার প্রতি আকাঙ্ক্ষা অনেক; মেয়র হিসেবে এই চাপ কীভাবে সামাল দেবেন, এমন প্রশ্নের জবাবে বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নের চেলে তাপস বলেন, আমার মনে হয় না এই সময়ে যে চাপ নিয়ে আমি মেয়র পদে দায়িত্ব নিয়েছি তা আর কেউ নিয়েছেন। অবশ্যই চাপ আছে। তবে বলব, আমাকে একটু সময় দেন; আস্থা রাখুন। কাজ করতে গিয়ে আপনাদের সমালোচনা আমি শুনব, উপদেশ গ্রহণ করব। তবে যাই করি ঢাকাবাসীর জন্য সঠিক সিদ্ধান্ত নেব। আর এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং বাস্তবায়নে কোনো বাধা এলে সেই বাধা মানা হবে না। ঢাকাবাসীর কল্যাণেই আমি কাজ করব।

এর আগে দুপুরে নগর ভবনে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. ইমদাদুল হকের কাছ থেকে মেয়রের দায়িত্ব বুঝে নেন তাপস। সাধারণত বিদায়ী মেয়রের কাছ থেকে দায়িত্ব বুঝে নেয়ার রেওয়াজ থাকলেও সাঈদ খোকন নগর ভবনে না আসায় প্রধান নির্বাহীর কাছ থেকেই দায়িত্ব বুঝে নিতে হল তাপসকে।

স্ত্রী আফরিন তাপস, আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফী, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর, নগর আওয়ামী লীগ নেতা মোরশেদ কামাল, কাউন্সিলর ফরিদউদ্দিন আহমেদ রতন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap