কাতার অবরোধ অবসানের ইঙ্গিত সৌদি আরবের

তিন বছর আগে কাতারের ওপর আরোপ করা অবরোধ অবসানের ইঙ্গিত দিয়েছেন সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এর সঙ্গে এক বৈঠকের পর এই অবরোধ অবসানের বিষয়ে অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান তিনি। গত বৃহস্পতিবার মার্কিন থিংকট্যাংক ওয়াশিংটন ইনস্টিটিউট ফর নিয়ার ইস্ট পলিসির সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলাপচারিতায় একথা জানান সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১৭ সালের জুনে উপসাগরীয় দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। দোহার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ ও মুসলিম ব্রাদারহুডের মতো বিরোধী রাজনৈতিক দলকে সমর্থন দেওয়ার অভিযোগ এনে কাতারের ওপর স্থল, নৌ ও আকাশ পথে অবরোধ আরোপ করে দেশ চারটি। অবরোধ আরোপ ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নের পর তা প্রত্যাহারে কাতারকে ১৩টি শর্ত দেয় দেশ চারটি। এসব শর্তের মধ্যে ছিলো আল জাজিরা মিডিয়া নেটওয়ার্ক বন্ধ, তুর্কি বাহিনী বহিস্কার, ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন এবং সংশ্লিষ্ট দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ। এসব শর্ত মানতে অস্বীকার করে কাতার জানিয়ে দেয় এসব পদক্ষেপ দোহার সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত।

বৃস্পতিবারের ভার্চুয়াল আলোচনায় সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স ফয়সাল বিন ফারহান বলেন, ‘আমরা সমাধান অনুসন্ধানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কাতারের ভাইদের সঙ্গে যুক্ত হতে আমরা এখনও আশাবাদী আর আশা করছি তারাও আমাদের সঙ্গে যুক্ত হতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’ তবে চারটি দেশের বৈধ নিরাপত্তা উদ্বেগকেও আমাদের স্বীকার করে নিতে হবে… আর আমরা মনে করি খুব দ্রুত একটি সমাধানের মাধ্যমে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ আছে’, বলেন সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, কাতারের সঙ্গে চার দেশের বিরোধ নিরসনে আগেও কয়েক বার উদ্যোগ নেওয়া হলেও তা ব্যর্থ হয়েছে। কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি জানিয়েছেন, তার দেশ এই সংকট নিরসনে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত তবে যে কোনও সমাধানের ক্ষেত্রে তার দেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান জানাতে বলেও বলেও জোর দিয়ে আসছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap