কে হবেন সিআইডি প্রধান?

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) নতুন প্রধান কে হচ্ছেন? এই প্রশ্ন ঘুরে ফিরে আলোচনায় আসছে পুলিশের ভেতরে। অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক চৌধুরী আবদুল্লাহ আর মামুন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক হওয়ায় পদটি শূন্য হয়েছে। সদ্য সাবেক র‌্যাব প্রধান বেনজীর আহমেদ হয়েছেন পুলিশ প্রধান। কিন্তু সিআইডি প্রধান কে হচ্ছেন তা এখনো ঠিক হয়নি।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন একাধিক সূত্র জানায়, অতিরিক্ত আইজিপি পদের বেশ কয়েকজনের নাম আলোচনায় আসছে। এছাড়া ডিআইজি থেকে অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি দিয়েও এই পদে নতুন মুখ আনা হতে পারে, এমন আলোচনাও হচ্ছে।

সম্ভাব্যদের মধ্যে পুলিশ সদরদপ্তরে টেলিকম অ্যান্ড ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট (টিঅ্যান্ডআইএম) বিভাগের প্রধান অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক ইকবাল বাহার ভালোই আলোচনায় আছেন। এর আগেও সাবেক সিআইডি প্রধান শেখ হিমায়েত হোসেন অবসরে গেলে সিআইডি প্রধান হওয়ার আলোচনায় ছিলেন তিনি।

এছাড়া পুলিশ সদরদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (অর্থ) শাহাব উদ্দীন কোরেশীর নামও সম্ভাব্য নতুন সিআইডি প্রধান হিসেবে শোনা যাচ্ছে।

গত বছরের ২৬ এপ্রিল ইকবাল বাহারকে পুলিশ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (টিঅ্যান্ডআইএম) হিসেবে পদায়ন করা হয়। ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল তিনি চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার হন।

১৯৮৯ সালে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেওয়া এই কর্মকর্তা এর আগে রাজশাহী পুলিশের ডিআইজি ছিলেন। এছাড়া তিনি পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি প্রশাসন, টেলিকম ও রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এর আগে তিনি সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া ঢাকা ও যশোর জেলার পুলিশ সুপার ছিলেন ইকবাল বাহার। তিনি একজন কৃষিবিদ। ১৯৬১ সালের ৩১ ডিসেম্বও তিনি পাবনার সদর উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

অন্যদিকে গত বছরের ১২ মে শাহাব উদ্দীন কোরেশীকে বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজি (অর্থ ও উন্নয়ন) নিয়োগ দেওয়া হয়। শাহাব উদ্দীন কোরেশী ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশ পুলিশে যোগ দেন। এর আগে তিনি ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তার জন্ম ১৯৬১ সালের ১৯ অক্টোবর। গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায়। তিনি ২০১৮ সালের ৭ নভেম্বর অতিরিক্ত আইজিপি হিসেবে পদোন্নতি পান।

তবে উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) থেকে অতিরিক্ত আইজি পদে পদোন্নতি দিয়ে সিআইডি প্রধান নিয়োগ দেওয়া হতে পারে বলেও পুলিশের একটি মহলে আলোচনা আছে। এ ক্ষেত্রে পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি রুহুল আমিন এবং মোশাররফ হোসেন নাম শোনা যাচ্ছে পুলিশের একটি সূত্রে শোনা যাচ্ছে।

এর আগে গত ৮ এপ্রিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে সদ্য সাবেক র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদকে পুলিশের মহাপরিদর্শক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। একই প্রজ্ঞাপনে সদ্য সাবেক সিআইডি প্রধান চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুনকে র‌্যাবের মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। তারা দুজনই আজ নতুন পদে দায়িত্ব নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap