চুমু খেয়ে সমালোচিত বুন্দেসলিগার ফুটবলার

প্রায় ৭০ দিন পর শনিবার (১৬ মে) ফুটবল ফিরেছে ইউরোপে। পৃথিবীর প্রথম মেজর সকার লিগ হিসেবে করোনা পরবর্তী সময় শুরু হল বুন্দেসলিগা। নির্দিষ্ট গাইডলাইন মেনে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং বজায় রেখেই বল গড়াল দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। প্রথম দিন সাফল্যের সঙ্গেই অনুষ্ঠিত হল চারটি খেলা। যদিও বিতর্ক রয়ে গেল একটি ম্যাচ ঘিরে।

গোলের পর গাইডলাইন মেনে আর্লিং হ্যালান্ড, ম্যাট হামেলসদের ডিসট্যান্ট সেলিব্রেশনের ছবি গতকাল ভাইরাল হয়ে যায় ইন্টারনেটে। প্রায় সবক’টি ম্যাচেই চোখে পড়েছে গোলের পর একই দৃশ্য। কিন্তু বিতর্ক তৈরি হয়েছে হফেনহেইমের বিরুদ্ধে গোলের পর হার্থার এক ডিফেন্ডারের সেলিব্রেশন ঘিরে। শনিবার গোলের পর হার্থা ডিফেন্ডার ডেড্রিক বোয়াতা সতীর্থ মার্কো গ্রুজিচের গালে চুম্বন করে বসেন। সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় বিতর্ক। গাইডলাইন ভেঙে সেলিব্রেশনের দায়ে বোয়াতার শাস্তি ঘোষণা করা হতে পারে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

যদিও পরে জানা যায় সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের নিয়ম ভাঙা হলেও এযাত্রায় কোনও শাস্তি হচ্ছে না হার্থার ওই ডিফেন্ডারের। জার্মান ফুটবল লিগ কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে নিশ্চিত করা হয় বিষয়টি। জার্মান ফুটবল লিগের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘সেলিব্রেশনের বিষয়টি বৃহস্পতিবার নিজেদের রুলবুকে অন্তর্ভুক্ত করেছে জার্মান ফুটবল লিগ। এটা নিয়ে ফুটবলারদের কাছে কোনও মেডিক্যাল সংস্থার নিষেধাজ্ঞা নেই।’ এছাড়া নিয়মের সঙ্গে ধাতস্থ হতেও সময় লাগবে বলে জানানো হয়।

আর যাকে নিয়ে এতো বিতর্ক সেই ডেড্রিক বোয়াতা বলছেন, ‘ছ’বার করোনা পরীক্ষা হয়েছে আমাদের। প্রত্যেকবারই রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। গতকালই একবার হয়েছে। তাছাড়া আবেগ খেলার অঙ্গ। আবেগ বিসর্জন দিয়ে ফুটবল খেলতে নামার কোনও অর্থ হয় না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap