ছাত্রলীগের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রলীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ শনিবার (৪ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে আসেন তিনি। পায়রা উড়িয়ে, পাতাকা উত্তোলন করে এবং জাতীয় সংগীত গেয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হলে স্লোগানে স্লোগানে তাকে স্বাগত জানায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও পুনর্মিলনী ঘিরে সকাল থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে থাকেন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। বিভিন্ন স্থান থেকে মিছিল সহকারে তারা যোগ দেন অনুষ্ঠানে। দুপুরের আগেই ভরে যায় অনুষ্ঠানস্থল। নেতা-কর্মীরা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত ব্যানার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে হাজির হয়েছেন পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে।

১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশনায় জন্ম হয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হিসেবে এ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সম্মতি জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরী জানান, ‘সকাল সাড়ে ৬টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে সংগঠনটির ৭২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শুরু হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় কার্জন হলে কেক কাটা হয়। ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যসহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা এতে উপস্থিত ছিলেন।’

ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান কেন্দ্রের পাশাপাশি সারাদেশের ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতারা উপস্থিত রয়েছেন। আগেই সবার কাছে আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেওয়া হয়।

দুইদিন ব্যাপি অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে রবিবার (৫ জানুয়ারি) পালিত হবে র -ক্তদান কর্মসূচি, এরপর শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap