তৃতীয় দফায় আসলো চীনের চিকিৎসা সরঞ্জাম

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশকে তৃতীয় দফায় চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে চীন। এতে আছে ৩০ হাজার টেস্টিং কিট, ৫০ হাজার পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই), ১৩ লাখ সার্জিকাল মাস্ক, ৫০ হাজার এন৯৫ মাস্ক এবং ৫০ হাজার মেডিকেল গুগলস।

চীনের পাঠানো এসব চিকিৎসা সরঞ্জাম গতকাল বিমানযোগে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়।

শুক্রবার (৫ জুন) এক বার্তায় এসব তথ্য জানিয়েছে ঢাকাস্থ চীনা দূতাবাস।

বার্তায় জানানো হয়, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় চীন সবসময় বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের মানুষের জীবন বাঁচাতে চীন শক্তিশালী সমর্থন দিচ্ছে।

তারই ধারাবাহিকতায় তৃতীয় দফায় গতকাল ৩০ হাজার টেস্টিং কিট, ৫০ হাজার পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই), ১৩ লাখ সার্জিকাল মাস্ক, ৫০ হাজার এন৯৫ মাস্ক এবং ৫০ হাজার মেডিকেল গুগলস পাঠিয়েছে চীন।

চীনা চিকিৎসা সামগ্রী ঢাকায় পৌঁছেছে বলেও বার্তায় উল্লেখ করে দূতাবাস।

চীন সরকার করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে চিকিৎসা সামগ্রী সহায়তা দিচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে বাংলাদেশে এসব সামগ্রী আসছে।

এর আগে প্রথম দফায় চীন বাংলাদেশকে দুই হাজার কিট ও চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছিল। এরপর দ্বিতীয় দফায় ১০ হাজার টেস্টিং কিট ও পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) এবং এক হাজার ইনফ্রারেড থার্মোমিটার বাংলাদেশের জন্য পাঠায় চীন।

চীন সরকার ছাড়াও দেশটির অনলাইন বিপণন প্রতিষ্ঠান আলিবাবা ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশন দুই দফায় বাংলাদেশের জন্য করোনা চিকিৎসা সামগ্রী পাঠায়। এছাড়াও দেশটির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও কিছু প্রতিষ্ঠানের জন্য করোনা মোকাবেলার চিকিৎসা সামগ্রী দিয়ে সহায়তা করে যাচ্ছে।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিন চীনের উহান শহরে প্রথম করোনা শনান্ত হলেও অচেনা ভাইরাসটি সেখানে ভয়াবহ আকার ধারণ করে ফেব্রুয়ারিতে। চীনে ভয়াবহ আকার ধারণ করা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় চীনকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক হিসেবে দেশটিকে ১০ লাখ হাতমোজা, পাঁচ লাখ মাস্ক, এক লাখ ৫০ হাজার ক্যাপ, এক লাখ হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ৫০ হাজার জুতার কাভার ও আট হাজার গাউন উপহার দেয় বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap