নদী ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবেঃ মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন

পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় মৌলভীবাজার জেলায় জুড়ী নদীর ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেন, প্রকল্প গ্রহণ ও তা যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করে স্থানীয় জনগণের দুর্ভোগের স্থায়ী সমাধান করা হবে।

রবিবার (২৮ জুন) জুড়ী নদীর ভাঙন রোধ বিষয়ে পরিবেশ মন্ত্রী স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে তার ঢাকার সরকারি বাসভবন থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন।

মো. শাহাব উদ্দিন বলেন, পাহাড়ি ঢলের কারণে জুড়ী নদীর ভাঙন প্রতিরোধে সাময়িক মেরামত করলে তা টেকসই হবে না। তাই স্থায়ী সমাধানের লক্ষ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে প্রকল্প গ্রহণ করে তা সুবিধাজনক সময়ে বাস্তবায়ন করা হবে। ফলে কাশিনগর গ্রাম ও জুড়ী নদীর ভাঙন কবলিত অন্যান্য স্থানগুলোর প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রক্ষা পাবে।

জুড়ী নদীটি ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলের ত্রিপুরার পাহাড়ি এলাকা থেকে উৎপন্ন হয়ে কুলাউড়া উপজেলার ধর্মনগর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত বরাবর কিছুদূর এগিয়ে জুড়ী উপজেলায় প্রবেশ করে নদীটি। জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন অংশ দিয়ে প্রবাহিত হয়ে হাকালুকি হাওরের উপর দিয়ে কুশিয়ারা নদীতে মিশেছে জুড়ী।

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় জুড়ী নদীও টইটুম্বুর হয়ে উঠেছে। নদীর পাড়ে ভাঙন দেখা দিয়েছে অনেক স্থানে।

পরিবেশ মন্ত্রীর নির্দেশে জুড়ী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিংকু রঞ্জন দাশ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা ভাঙন কবলিত স্থান পরিদর্শন করে করণীয় বিষয়ে মন্ত্রীকে অবহিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap