নারী-শিশুসহ অসহায় মানুষের কাছে সরকারের সাহায্য পৌঁছে দিতে হবেঃ প্রতিমন্ত্রী

নারী ও শিশুদের জন্য সামাজিক নিরাপত্তামূলক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

তিনি বলেন, বিদ্যমান পরিস্থিতিতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের দায়িত্ব অনেক বেশি। নারী ও শিশুসহ সমাজের অসহায় মানুষের কাছে সরকারের সাহায্য পৌঁছে দিতে হবে। বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা ও স্বামী পরিত্যক্ত ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতার মাধ্যমে সরকার এক কোটি মানুষকে বিভিন্ন সহায়তা দিচ্ছে। একজন মানুষও যেন অনাহারে, অধর্হারে না থাকে সরকার সে লক্ষ্যে কাজ করছে।

আজ রবিবার (২৬ এপ্রিল) সচিবালয়ে কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটির পর সীমিত পরিসরে অফিসের প্রথম কার্যদিবসে মন্ত্রণালয়ের এক জরুরি সভায় তিনি একথা বলেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী রওশন আক্তার, অতিরিক্ত সচিব ফরিদা পারভীন ও দপ্তর-সংস্থার প্রধানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা বলেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ভিজিডি কার্যক্রমের আওতায় ১০ লাখ ৪০ হাজার দুস্থ-অসহায় নারীকে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে। শহরাঞ্চলে ২ লাখ ৭৫ হাজার কর্মজীবী দরিদ্র মাকে ল্যাকটেটিং মা ভাতা ও পল্লী অঞ্চলের ৭ লাখ ৭০ হাজার দরিদ্র মাকে মাতৃত্বকালীন ভাতা দিচ্ছে। এছাড়াও সমাজের দুস্থ নারী ও শিশুদের জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম চলমান। কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতিতে সামাজিক নিরাপত্তামূলক এসব কার্যক্রমের সুবিধাভোগীর সংখ্যা পর্যায়ক্রমে বাড়ানো এবং নারী ও শিশুর উন্নয়নে চলমান সব প্রকল্পের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরার সভাপতিত্বে সভায় মন্ত্রণালয় এবং দপ্তরসংস্থার সব কর্মকর্তা/কর্মচারী যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের দাপ্তরিক কাজ সম্পাদন, কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে মন্ত্রণালয় এবং অন্যান্য দপ্তর/সংস্থার সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীর ১ দিনের মূল বেতনের সমপরিমাণ টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়াও চলমান প্রকল্পগুলোর কার্যক্রম অব্যাহত রাখা ও মন্ত্রণালয় এবং দপ্তর/সংস্থার কর্মকর্তা/কর্মচারীরা সার্বক্ষণিক কর্মস্থলে অবস্থান ও জরুরি প্রয়োজনে অফিসে উপস্থিত হয়ে দাপ্তরিক কার্যাদি সম্পাদন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap