পাপুলের সাজা হলে এমপি পদ শূন্য হতে পারে

নির্বাচনি হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেওয়ার কারণে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শহীদুল ইসলাম পাপুলের বিরুদ্ধে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থা ব্যবস্থা নিতে পারে। আদালতে প্রমাণিত হলে স্পিকার তার পদ শূন্য করতে পারেন।

এদিকে মানবপাচারের দায়ে কুয়েতে গ্রেপ্তার স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শহীদুল ইসলাম পাপুলের দ্বৈত নাগরিকত্ব নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদকে জানিয়েছিলেন দুই দেশের নাগরিক হলে পাপুলের সদস্য পদ বাতিল হবে। অবশ্য এর পরপরই কুয়েতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় পাপুল তাদের দেশের নাগরিক নন।

অবশ্য নাগরিকত্ব ইস্যুতে না হলেও ফৌজদারি অপরাধে কুয়েতের আদালতে দুই বছরের বেশি সাজা হলে বাংলাদেশে তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হবে বলে মনে করেন আইনজ্ঞরা।

অপরদিকে পাপুলের সংসদ সদস্য পদ বাতিল চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট করেছেন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্থানীয় ভোটার আবুল ফয়েজ ভূঁইয়া।

নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেন, ‘কোন কোন কারণে পদ বাতিল হতে পারে, তা সংবিধানে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে। বাতিল হওয়ার মতো কোনও ঘটনা ঘটলে তখনই স্পিকার ব্যবস্থা নিতে পারেন। নৈতিক অবক্ষয়ের কারণে নির্দিষ্ট মেয়াদে জেল হলে, দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রমাণ হলে কারও সদস্যপদ বাতিল হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘কুয়েতে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সেই মামলায় যদি তার সাজা হয় এবং এটা যদি বাংলাদেশের আইনে কাভার করে, তাহলে সরকার ওই মামলার আলোকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap