বাজেট অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করার চিন্তা

আসন্ন ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন যতদূর সম্ভব সংক্ষিপ্ত হবে। করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে অধিবেশন সংক্ষিপ্ত করার চিন্তাভাবনা চলছে। সংসদ সচিবালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের ঝুঁকি যতদূর সম্ভব এড়াতে আগেভাগে অধিবেশন না ডেকে বাজেট পেশের দিনই তা ডাকার ব্যাপারে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সায় পেলে এ বিষয়টি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। তারপর অধিবেশন আহ্বানের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে নথি উপস্থাপন করা হবে।

সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে সদ্য শেষ হওয়া সপ্তম অধিবেশনের মতো বাজেট অধিবেশন খুবই সংক্ষিপ্ত করার চিন্তা থাকলেও আইনগত কারণে তা সম্ভব হবে না। সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী সংসদে উপস্থাপিত চলতি অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট এবং আগামী অর্থবছরের বাজেটের ওপর জাতীয় সংসদে সাধারণ আলোচনার বিধান রয়েছে।

ফলে আলোচনা না করে বাজেট পাস হলে তা আইনি ব্যত্যয় হবে। যার কারণে যতদূর সম্ভব কম সময় আলোচনা করে বাজেট পাস করা হবে। বিগত বাজেট অধিবেশনগুলো পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ৪০ থেকে ৬০ ঘণ্টা আলোচনা হয়েছে। তবে এবারের বাজেট আলোচনা হবে খুবই সংক্ষিপ্ত।

এক্ষেত্রে তা পাঁচ থেকে দশ ঘণ্টার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হতে পারে। অবশ্য সংসদ কক্ষের পরিবর্তে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে অনলাইন ভিত্তিক অধিবেশন চালানোর বিষয়টিও চিন্তা করা হচ্ছে। আইনে কোনও বাধা না থাকলে এ বিষয়টিকে বিবেচনা করা হবে। এটা সম্ভব হলে বাজেটের ওপর আলোচনার সময় কিছুটা বাড়তে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap