রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ দিবসের জন্য ভারত সফরে যাননি দুই মন্ত্রী : ওবায়দুল কাদের

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে গঠনমূলক বন্ধুত্ব বজায় আছে বলে দাবি করে এবং দেশের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ দিবসের জন্য দুই মন্ত্রীর ভারত সফর আপাতত স্থগিত রয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কোনো বিষয়ে ভুল বোঝাবুঝি হলে আলোচনার মাধ্যমে তা সমাধান করা হবে। আওয়ামী লীগ সরকারকে বিব্রত করতে দেশি-বিদেশি চক্র সক্রিয় রয়েছে।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে প্রত্যাগত প্রবাসী আওয়ামী ফোরামের প্রথম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফর স্থগিত হওয়ায় রাজনৈতিক মহলে ঘনীভূত হওয়া নানা গুঞ্জনের প্রেক্ষিতে সফর স্থগিত হওয়ার কারণের কথা জানালেন সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এদিকে দলের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এরই মধ্যে ২৯টি জেলার সম্মেলনের কাজ শেষ করেছি। এতো অল্প সময়ে এটা অবিশ্বাস্য, এরপরও করেছি। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। আমরা মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলো নতুন করে দিয়েছি। সম্মেলনের ভালো প্রস্তুতি রয়েছে। ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা, জাগরণ তৈরি হয়েছে।

তিনি বলেন, সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা এলে কোনো দলীয় পরিচয়ে হয় না। দুর্বৃত্তদের কোনো দল নেই। বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন বলতে যেটা বোঝায়, সেটির দগদগে চিত্র দেখা যাবে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর সংখ্যালঘুদের ওপর যে বর্বরতা হয়েছে তার সঙ্গে। সেটি কেবল একাত্তরের বর্বতার সঙ্গে তুলনা করা চলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap