শীতে বিয়ে, পিকনিক- ধর্মীয় অনুষ্ঠান সীমিত আকারে করতে হবেঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকরা শ্রেষ্ঠ ইবাদত করছেন বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল অক্সফোর্ড। কিন্তু তাদের সেই আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত হয়েছে।

রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিন আয়োজিত ‘শতাব্দীর মহামারি করোনা, বাস্তবতা ও আমরা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কম হয়েছে।

চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে রোগীদের চিকিৎসা সেবা চালিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় ঝিমিয়ে পড়লে চলবে না। সামনে আরও কাজ করতে হবে। শীতকালে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময়ে বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠান যেমন বিয়ে-শাদি, পিকনিক, খেলাধুলা ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান বেশি হওয়ায় জনসমাগম হয়। এ কারণে আসন্ন শীত মৌসুমে এসব আচার-অনুষ্ঠান নিয়ন্ত্রণ ও সীমিত আকারে করতে হবে।

করোনার সংক্রমণ রোধে জনগণকে মাস্ক পরিধান, পরিবহনে যাতায়াতে সর্তকতা, সাবান বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করা ইত্যাদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, করোনাভাইরাস শনাক্তে টেস্টের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি করতে হবে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সময়মতো করোনার ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে এবং ভ্যাকসিন উৎপাদনে এগিয়ে আছে এমন অনেক দেশ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের প্রশংসা করে স্বাস্থ্য জাহিদ মালেক বলেন, সরকারি ও বেসরকারি চিকিৎসকদের মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap