সেবার মানসিকতা নিয়ে বিদ্যুৎ পরিষেবা জনগণের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ার আহ্বান

পরিবেশবান্ধব উন্নত বাংলাদেশ গঠনে ইঞ্জিনিয়ারদের (প্রকৌশলী) আরও অবদান রাখতে হবে’ বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) অনলাইনে বাংলাদেশ পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট (বিপিএমআই) আয়োজিত ‘ডেসকোতে নবনিযুক্ত প্রকৌশলীদের ৫০ কর্ম দিবসব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

নসরুল হামিদ বলেন, ‘পরিবেশবান্ধব উন্নত বাংলাদেশ গঠনে ইঞ্জিনিয়ারদের আরও অবদান রাখতে হবে। গ্রাহকসেবা দেয়াই ব্রত থাকা প্রয়োজন। গ্রাহক সন্তুষ্টি নিশ্চিত করতে সর্বদা একাগ্রচিত্তে কাজ করতে হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। উন্নত বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে নিজেদের মাইন্ডসেট পরিবর্তন করতে হবে। উন্নত দেশে প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার হয়। আমাদের দেশেও প্রযুক্তির ব্যবহার ক্রমেই বাড়ছে। প্রযুক্তির ব্যবহার যতই বাড়বে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা ততই বাড়বে। আমরা সবসময়ই জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে চাই। এটা আমাদের গ্রাহকসেবা দিতে আন্তরিক হতে সহায়তা করবে।’

‘ইঞ্জিনিয়ারদের প্রযুক্তির ব্যবহারের দক্ষতার সঙ্গে সঙ্গে নেতৃত্বেও দক্ষ হওয়া প্রয়োজন। বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে কাজ করলে উন্নত আধুনিক বাংলাদেশ গড়া সময়ের ব্যাপার মাত্র।’

এসময় সেবার মানসিকতা নিয়ে বিদ্যুৎ পরিষেবা জনগণের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেয়ারও আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দ্বিতীয় বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ গত ৬ জুলাই শুরু হয়েছিল, ৫০ কর্মদিবস পর তা শেষ হলো। ডেসকোতে নবনিযুক্ত ৪৮ জন সহকারী প্রকৌশলী ও ৯ জন সহকারী ব্যবস্থাপকসহ মোট ৫৭ জন প্রশিক্ষণার্থী ছিল এতে। ১১টি মডিউলে সম্পূর্ণ কোর্সটি ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ পাওয়ার ম্যানেজমন্টে ইনস্টিটিউটের সেক্টর মাহবুব-উল-আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাপনী অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ সচিব সুলতান আহমেদ ও ডেসকোর পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোছা. মাকসুদা খাতুন বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Share via
Copy link
Powered by Social Snap